26/04/2018

জেনে নিন, বিয়ের প্রথম রাতে যেভাবে বিড়াল মারতে হয়!

দাম্পত্য কোন একদিনের বিষয় না, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দাম্পত্য আজীবনের। সকলে এই প্রত্যাশা নিয়েই বিবাহ করেন যে পাশের মানুষটি জীবনসঙ্গী হয়ে থাকবেন চিরকাল। আর এই চিরস্থায়ী সম্পর্কের সূচনা হয় বিয়ের রাতেই। আজকালকার আধুনিক প্রজন্মের কাছে শুনতে যতই হাস্যকর মনে হোক না কেন, বিয়ের প্রথম রাত বা ফুলশয্যার রাতটি যে কোন দম্পতির জীবনের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ রাত। আর এই সুন্দর রাতটিতেই নিজেদের বন্ধনকে মজবুত করে নিতে হয় চিরকালের জন্য। চলুন, জেনে নিই এমন ১০টি জিনিস যা বিয়ের প্রথম রাতে ভুলে গেলে চলবে না মোটেও।

 

১) বিয়ের প্রথম রাতের সাথে যৌনতা ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তবে হ্যাঁ, এই যৌনতার জন্য কোন মানসিক চাপ নেবেন না। এমন নয় যে যৌন মিলন আজ রাতে হতেই হবে। বিয়ের অনুষ্ঠানগুলো টানা থাকার কারণে বর ও বউ উভয়েই ক্লান্ত হয়ে যাওয়া স্বাভাবিক। এবং সেই ক্লান্তি এসে থাকলে বরং বিশ্রাম নিন। নিজেদের প্রথম যৌন অভিজ্ঞতাটি সুন্দর করে তুলতে সহায়তা হবে।

২) প্রথম রাত ও প্রথম যৌন মিলনের ব্যাপারটি নিয়ে নারীদের মনে অনেক ধরণের ভীতি কাজ করে। যদি খুব বেশি নার্ভাস বোধ করেন বা খুব অস্বস্তি লাগে, তাহলে স্বামী উদ্যোগী হলে তাকে ব্যাপারটা বুঝিয়ে বলুন। তিনি এখন আপনার জীবন সঙ্গী। আপনার সকল সমস্যা তাঁকেই বুঝতে হবে।

৩) স্বামীরাও যৌন মিলনের জন্য তাড়াহুড়া করবেন না, এতে আপনার সম্মান খুন্ন হবে এবং স্ত্রী ভেবে বসতে পারেন যে কেবল যৌনতা নিয়েই আগ্রহী আপনি। স্ত্রী এখন আপনার, যৌনতার জন্য বাকি জীবন পড়ে আছে। প্রথম রাতে স্ত্রী চোখে নিজেকে একজন মার্জিত পুরুষ প্রমাণ করুন তাঁর ইচ্ছার মূল্য দিয়ে।

৪) বিয়ের প্রথম রাতটি আরও কখনোই ফিরে আসবে না জীবনে। তাই এই রাতের জন্য কিছু বিশেষ রোমান্টিক প্ল্যান অবশ্যই রাখুন। নিদেন পক্ষে কিছু উপহার কিনে রাখুন সঙ্গীর জন্য, রোমান্টিক কবিতা মুখস্ত করে রাখতে পারেন, ঘরে রাখতে পারেন গান শোনার ব্যবস্থা।

৫) বিয়ের রাতেই হানিমুনের জন্য রওনা হওয়া একটা বাজে প্ল্যান। আনন্দ তো হবেই না, বরং অযথা বাড়বে ক্লান্তি।

৬) বিয়ে প্রেমের হোক বা পারিবারিক, বিয়ের রাতে অবশ্যই সঙ্গীকে জানান যে তাঁকে আপনি কীভাবে ভালোবেসে ফেলেছেন এবং এখন থেকে আপনার জীবন কেবল তাঁকে ঘিরেই।

৮) একটা জিনিস মনে রাখবেন, এটাই আপনাদের নতুন জীবনের প্রথম পর্ব। তাই এই রাতে এমন কিছু বলবেন না বা করবেন না, যাতে জীবনের সূচনা পর্বেই সব গড়বর হয়ে যায়।

৯) স্বামী বা স্ত্রীর অতীত প্রেম নিয়ে জেরার করার কুৎসিত কাজটিও বিয়ের রাতে করতে যাবেন না। যা গিয়েছে, তা গিয়েছে। সেটার জন্য নিজেদের জীবনের সবচাইতে সুন্দর সময়টিকে নষ্ট করবেন না ভুলেও।

১০) হ্যাঁ, পরস্পরের পরিবারকে যে দুজনের খুবই ভালো লাগবে এমন কোন শর্ত নেই। কিন্তু সেটা নিয়েই বিয়ের রাতে আলোচনা করার মানে নেই। অনুষ্ঠানে কী হলো বা হলো, কে কী উপহার দিল, কে কী করেছে এগুলো নিয়ে কথা বলার জন্য বাকি জীবন আছে।
মোট কথা এই যে, বিয়ের প্রথম রাতটি কেবলই প্রেমের। পরস্পরকে জানার, বোঝার ও ভালোবাসার জন্য। এই রাতটি কিছুতেই হেলায় হারাবেন না।

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook

Instagram

You Tube

"At the end of Love there is Pure Love"

Pure Love © 2020 | Privacy Policy