25/10/2017

ছেলেদের কিছু গোপন সমস্যা ও সমাধান – অবশ্যই পড়বেন ছেলেরা

গোপন সমস্যা – প্রেম জীবনে কিংবা দাম্পত্যে যখন কোনো ব্যাপার নিয়ে মনোমালিন্য হয় কিংবা একজন আরেকজনকে একেবারেই বুঝতে পারেন না তখন মনে মনে ভাবতে থাকেন আসলেই কী চিন্তা করেন তার সঙ্গী।কী ভাবেন এবং কোন জিনিষটির ভিত্তিতে কথা বলেন।

বিশেষ করে একজন মেয়ের ক্ষেত্রে এই জিনিষটি অনেক বেশি কাজ করে। কারণ কোনো কিছুতে একটু উনিশ বিশ হলেই মেয়েরা চিন্তায় বসে যান যা ছেলেরা একেবারেই করেন না।একটা মানুষকে কি পুরোপুরি বুঝে ফেলা যায়? জেনে ফেলা যায় তাঁর সবকিছু? একেবারেই না!

যে মানুষটি নিজের বন্ধুদের সাথে একরকম, প্রেমিকা বা স্ত্রীর সাথে হতে পারেন সম্পূর্ণ ভিন্ন। তাহলে কীভাবে বুঝবেন প্রিয় পুরুষটির মনের ভাব, কী করে জানবেন তাঁর গোপন কথা? এক্ষেত্রে আপনাকে জানতে হবে এমন কিছু কথা যা মোটামুটি সব ছেলের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।আরো পরুন…

বীর্য ঘন করার সবগুলি উপায় জানুন, কাজে লাগবে আপনারঅনেকেই আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন বীর্য ঘন করার উপায় সম্পর্কে। অনেকে আবার ওষুধ খেয়ে ঘন করতে না পেরে অতিষ্ঠ ।

তারা জানতে চান আসলেই কি বীর্য ঘন করার কোন উপায় আছে কিনা! হাঁ প্রাকৃতিক কিছু জিনিস যা আমদের হাতের কাছেই পাওয়া যায় যেমন রসুন হতে পারে আপনার বিবাহিত জীবনের নতুন বন্ধু।নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খেলে এমনিতেই পুরুষের বীর্য ঘন হয়ে থাকে।

যেমন প্রতিদিন দুধ, ডিম, মধু গ্রহণপ্রতিদিন নিয়ম করে কয়েক কোয়া কাঁচা রসুন খেলে শরীরের যৌবন দীর্ঘ স্থায়ী হয় । যারা পড়ন্ত যৌবনে চলে গিয়েছেন, তারা প্রতিদিন দু’কোয়া রসুন খাঁটি গাওয়া ঘি-এ ভেজে মাখন মাখিয়ে খেতে পারেন। তবে খাওয়ার শেষে একটু গরম পানি বা দুধ খাওয়া উচিত।এতে ভালো ফল পাবেন।যৌবন রক্ষার জন্য রসুন অন্যভাবেও খাওয়া যায়।

কাঁচা আমলকির রস ২ বা ১ চামচ নিয়ে তার সঙ্গে এক বা দুই কোয়া রসুন বাটা খাওয়া যায়। এতে স্ত্রী-পুরুষ উভয়ের যৌবন দীর্ঘস্থায়ি হয়।তবে যাদের শরীর থেকে রক্তপাত সহজে বন্ধ হয় না, অতিরিক্ত রসুন খাওয়া তাদের জন্য বিপদ জনক।

কারণ, রসুন রক্তের জমাট বাঁধার ক্রিয়াকে বাধা প্রদান করে।রাতে শুবার সময় ইসুপগুলের ভুসি পানি দিয়ে খাবেন ৭ দিন খান ফলাফল নিজেই পাবেন। কোথায় আছে দাদা খেলে দাদি খুশি নানা খেলে নানি খুশি এরেই নাম ইসুপগুলের ভুসি।

নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খেলে এমনিতেই পুরুষের বীর্য ঘন হয়ে থাকে। যেমন প্রতিদিন দুধ, ডিম, মধু গ্রহণ করলে সাধারণত আর কোনো কিছুরই দরকার পড়ে না।

অনেকে আবার সরাসরি ঔষধ খাওয়া শুরু করে দেন। তারও কোনো দরকার আছে বলে ডাক্তাররা মনে করেন না।

কারণ পুরুষের বীর্য উত্পন্ন হয় সরাসরি তাদের খাবার থেকে।আর যদি কিছু খেতেই মনে চায় তাহলে “শিমুল মূল চূর্ণ” এবং “শিলাজুত” প্রতিদিন ১ চামচ পরিমান সকালে পানিতে মিশিয়ে সপ্তাহ বা ১০ দিন খেতে পারেন।

এতেই কাজ হয়ে যাবে। “শিলাজুত” আগের দিন পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হয়।এগুলো প্রাকৃতিক।

হোমিওপ্যাথিতেও বীর্য ঘন করার দারুন কিছু ঔষধ রয়েছে যেগুলির কোনো প্রকার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই এবং সারা বছরই আপনি খেতে পারবেন।

কিন্তু আমরা রোগ-ব্যাধি ছাড়া কাউকেই কোনো প্রকার ঔষধ খাওয়ানোর পক্ষপাতি নই। ধন্যবাদ।

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook

Instagram

You Tube

"At the end of Love there is Pure Love"

Pure Love © 2020 | Privacy Policy