24/04/2018

বিয়ের 10 দিন পার হতে না হতেই আমার বমি বমি ভাব আর মাথা ঘুরানি , তারপরেই আমি…

এই লেখাটা বাস্তব ঘটনা আবলম্বনে! তবে তাঁর নাম প্রকাশ করা হলোনা তার ইচ্ছা না থাকার কারনে ।।
বিয়ের ২০ দিন না যেতে – বিয়ের ২০ দিন না যেতে না যেতেই মেয়েটার মাথা ঘুরানি আর বমি বমি ভাব দেখে শুধু আমি অবাক হইনি, বরং অবাক হয়েছে আমার গোটা পরিবার।

অবশেষে পরিবারের চাপে পড়ে নিয়ে গেলাম ডক্টরের কাছে! চেকাপ করে সত্যাটা প্রকাশ পেলো,আমি বাচ্চার বাবা হতে চলেছি! যেখানে আমার খুশি হওয়ার কথা সেখানে আমি নারাজ!! মেয়েটাকে বাসায় নিয়ে আসলাম।মেয়েটার চোখে চোখ রেখে জানতে চাইলামঃ –সত্যি কি এই বাচ্চার বাবা আমি? মেয়েটা চুপ করে আছে! কোন উত্তর নেই!!

মাথায় হাত বুলিয়ে সাহস দিলাম, ভয় পেয়োনা। আমি তোমাকে ত্যাগ করবোনা, শুধু একজন পুরুষ হয়ে সেই পুরুষেকে ধিক্কার জানাবো, যে আমার স্বপ্নটা পূরণ হতে দেয়নি! মেয়েটার চোখ দিয়ে শুধু পানি ঝরছে। কাধতে কাধতে হেস্কি উঠে গেছে তার। কান্নার আওয়াজ আমার অন্তর

ভেঙ্গে খান খান করে দিচ্ছে।

আমি উত্তর পেয়ে গেছি!তবুও তাকে দোষ দেয়নি। ভাগ্য বলে চালিয়ে নিলাম! ওকে এতটাই ভালোবাসি যে, ছুড়ে ফেলতে পারলাম না!
আমি পরিবার থেকে বঞ্চিত হলাম। অন্য অফিসে বদলি হলাম। মেয়েটা কেমন জানি বোবা হয়ে গেছে, বাসায় একা একা মন মরা দিয়ে থাকে সারাক্ষণ।

কোন কথা বলে না। কাঁদতে কাঁদতে চোখের নিচে কালো দাগ পড়ে গেছে! হঠাৎ এক গভীর রাতে হু হু করে কেঁদে উঠেছে।

আমি চমকে গেলাম। জেগে দেখি মেয়েটা আমার বুকের উপর মাথা রেখে চোখের পানিতে আমার গেঞ্জি ভিজিয়ে ফেলছে। চোখ মুছে দিয়ে আবার বুকে জড়িয়ে নিলাম। আমি ওকে একটুও ঠকাইনি তবে সে আমাকে ঠকিয়েছে এটাই তার দুঃখ। তবে বেপার না, আমি ঐ বাঁচ্চা কে নিয়েই স্বপ্ন দেখতে শুরু করলাম! বিয়ের বয়স ৮ মাস হতেই বাচ্চা ভূমিষ্ঠ হলো।

দুঃখের বিষয় বাচ্চাটা ছিলো মরা! মেয়েটার জ্ঞান ফেরার পরে যখন জানতে পারলো বাচ্চাটা মারা গেছে, সে তখন গলা ফাটিয়ে চিৎকার করে আমাকে ডাক দিয়ে আবার বেহুশ হয়ে গেলো। তারপর থেকে মেয়েটা আর কথা বলতে পারেনা। এখনো দুজন দুজনকে পাগলের মত ভালবাসি!

বিয়ের বয়স আজ চার বছর, বাবা হওয়ার স্বপ্নটা আর পূরণ হলোনা। তবুও সারাদিন পরিশ্রম শেষে যখন ডিম লাইটের আলো নিভিয়ে মেয়েটা আমার বুকের উপর মাথা রাখে, বিশ্বাস করুন….!!

আমি তখন স্বর্গের ছোঁয়া পাই। ভালো থাকুক ভালবাসা!! ভাল থাকুক ভালবাসার মানুষগুলো ভালবাসার কাছে অনেক বড় ভুলও ক্ষমার যোগ্য হয়ে যায়!

ভালবাসুন, কিন্তু কিছু গোপন রেখে না। সম্পর্ক জড়াবার আগে সব সত্য বলে দিন, মাফ চেয়ে নিন!! তারপর দেখবেন আপনিই শ্রেষ্ঠ প্রেমিক-প্রেমিকা/স্বামী-স্ত্রী।

(বেচে থাকুক প্রকৃত ভালবাসা আজীবন)

লেখাটি ফেইসবুক থেকে নেয়া

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook

Instagram

You Tube

"At the end of Love there is Pure Love"

Pure Love © 2019 | Privacy Policy